ওয়ার্ডপ্রেস স্পিড অপটিমাইজেশন প্লাগিন্স। WordPress Speed Optimization Plugins

wordpress speed optimization plugins

Chapter-05- ওয়ার্ডপ্রেস স্পিড অপটিমাইজেশন প্লাগিন্স

প্লাগিন্সের মাধ্যমে ওয়ারর্ডপ্রেস ওয়েবসাইটের পেজ লোডিং স্পীড বৃদ্ধি করার জন্য শর্টকাট কিছু স্ট্র্যাটেজি রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটের লোডিং স্পিড খুব সহজেই বৃদ্ধি করতে পারবেন। যদি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েব সাইটের লোডিং স্পীড স্লো হয় তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য।

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটে এরকম অনেক স্পিড-আপ করার প্লাগিন্স পাওয়া যাবে যার প্রতিটা  এক লক্ষ, দশ লক্ষ রিভিউ রয়েছে কিন্তু আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ইফেক্টিভ না। এইজন্যই যাচাই বাছাই করে সিলেক্ট করুন কোন প্লাগিন্সটি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য পারফেক্ট।

আমরা মনে করি আমদের এই রিভিউটা  আপনার ওয়েবসাইটের জন্য কোন প্লাগিন্স ইফেক্টিভ সেটা যাচাই করে দেখতে সাহায্য করবে।

ওয়ার্ডপ্রেস স্পিড অপটিমাইজেশন প্লাগিন্স [WordPress Speed Optimization Plugins]

এখন আমরা  ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট এর স্পিড বড়ানোর জন্য পাঁচটি বেস্ট প্লাগিন্স  সম্পর্কে বিস্তারিত জানব।

WP Super Minify

WP Super Minify ওয়েবসাইট থেকে হেল্প করবে CSS, HTML, JavaScript  এবং অন্যান্য অতিরিক্ত কোডিং গুলো রিমুভ করে আপনার ওয়েবসাইট থেকে হালকা করে দিবে। এই টুলসের মাধ্যমে এরকম অনেক ব্যবহারকারী আছে যারা 2 থেকে 3 পার্সেন্ট ওয়েবসাইট লোডিং স্পীড বৃদ্ধি করেছে। যাদের ওয়েবসাইটে CSS বা JavaScript বেশি ব্যবহার করা হয়েছে তাদের জন্য এই প্লাগিংসটি বেস্ট অপশন হতে পারে।

 WP Smush

বহুল ব্যবহৃত একটি প্লাগিন  হল  WP Smush , এটি ইমেজ কম্প্রেশন wordpress-plugins বলেও বহুল পরিচিত,  এই  প্লাগিন্স দিয়ে ওয়েবসাইটে  ইমেজকে কম্প্রেস করা যায় এবং ইমেজের রেজুলেশন ঠিক রেখে ওয়েবসাইটে আপলোড করে অটোমেটিক্যালি স্পিড আপ করবে। সাদধারনত ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইটে আন-অপ্টিমাইজড ইমেজ সাইটের লোডিং স্পিডকে অনেক স্লো করে দেয়। এইজন্য এ ধরনের প্লাগিন্সের অনেক বেশি জনপ্রিয়তা রয়েছে।

Lazy load by WP rocket

এই টুলসটির  ফ্রি এবং পেইড উভয় ভার্সনই আছে যারা একটু ফাস্ট রেজাল্ট পেতে চান তাদের জন্য পেইড ভার্সনটি  ভালো হবে।  এটি বহুল ব্যবহৃত একটি ওয়ার্ডপ্রেস স্পিড আপ প্লাগিনস,  হাই রেজুলেশন ইমেজ, বিগ কনটেন্ট এগুলো ভিজিটরের ব্রাউজারে খুব তাড়াতাড়ি লোড করতে হেল্প করবে। যেকোনো ধরনের ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েব সাইটের জন্য এটি একটি বেস্ট প্লাগিন্স।

আমাদের এক্সপেরিয়েন্স থেকে বলছি সাধারণত এই টুলসের প্রিমিয়াম ভার্সন টি খুবই কার্যকর হবে যে কোন পেজের লোডিং টাইম কমিয়ে দেওয়ার জন্য। তবে আপনি চাইলে ফী ভারর্সনটিও ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

 WP-Optimise

এটিও অনেক কার্যকরী একটি  টুলস  যা  একসঙ্গে অনেকগুলো কাজ করে যেমন ওয়েবসাইটের ইমেজ কম্প্রেস করার কাজ, ওয়েবসাইটের Gzip  প্যানেল অ্যাক্টিভেশন  এবং পেজ Caching করার কাজ করবে সাথে ওয়েবসাইটের ডাটাবেজ অপটিমাইজ করে যা ওয়েবসাইটের লোডিং স্পীড কে ইম্প্রুভ করবে।

W3 Total Cache 

এটি একটি জনপ্রিয় স্পিড অপটিমাইজেশন প্লাগিন্স যা সম্পূর্ণ ফ্রি, কিন্তু এর কনফিগারেশন অনেক কমপ্লিকেটেড- যারা এডভান্স লেভেলে ওয়েবসাইটের স্পিড অপটিমাইজেশন করতে চান তারাই শুধুমাত্র এই প্লাগিংসটি ব্যবহার করতে পারেন।

 উপসংহার

দিন শেষে সেই ব্যক্তিটি জিতে যাবে যে তার ভিজিটরদের জন্য হাই স্পীড পেজ লোডিং ওয়েবসাইট উপহার দিতে পারবে।

এজন্য সব সময় চেষ্টা করবেন যেই ধরনের প্লাগিন্স ব্যবহার করুন না কেন সেটি দ্বারা যেন ওয়েবসাইটের কিছুটা হলেও ইম্প্রুভ হয়, এমন যেন না হয়- প্লাগিন্সটি ইনস্টল করার কারণে ওয়েবসাইট লোডিং আরো বেশি স্লো হয়ে গেল। 

Leave a Reply